আজ তবে Narrative Prose অর্থাৎ ঘটনার বর্ণনা । আখেরে বর্ণনাই দিতে হবে, অর্থাৎ Descriptive Prose ছাড়া Narrative Prose এর অস্তিত্ব কল্পনা করা উচিত নয় । Narrative Prose আমরা অনেক পড়েছি, গল্প মানেই Narrative Prose। তাই আমি আর এখানে উদাহরণ টানছিনা, তোমরা নিজের সাহিত্য বইয়ে পড়ে নিও । এখন চল গল্প লেখা শিখি ।


গল্প অনেক রকম হয় । ছোট গল্প, রূপ কথা, লোক কথা, বড় গল্প, অনুগল্প ইত্যাদি । এগুলোর মধ্যে ফারাক থাকলেও মিলটাই বেশি । গল্পের মূল উপজীব্য হচ্ছে ঘটনা । কিছু ঘটবে, কি ঘটল এবং কিভাবে তা উপস্থাপন করা হল তার উপর নির্ভর করে গল্পটা আসলে কোন শ্রেণীতে পড়ে । সেটা নিয়ে এই মুহূর্তে না ভাবলেও চলবে, কারণ আমাদের উদ্দেশ্য স্রেফ ঘটনার বর্ণনা করা । গল্প কোন শ্রেণীতে পড়ল অথবা গল্পে আদৌ গল্প আছে কিনা এসব বিষয়ে আমরা অন্য কোন পোষ্টে কথা বলব ।


গল্প যাই হোকনা কেন, যাই ঘটে থাকুকনা কেন তার একটা ছাঁচ থাকেই । গল্পের স্থান, কাল, পাত্র পালটালেও গল্পের মূল ছাঁচ পালটানো যায়না । একে বলে গল্পের Archetype । গল্পের Archetype রয়েছে সাতটি ।


১। নির্ধন থেকে ধনী


নির্ধন ব্যক্তির ধনি হওয়ার গল্প । মূর্খ ব্যক্তির শিক্ষিত হওয়ার গল্প । এসব কিছুই পড়ে এই শ্রেণীতে । এরকম গল্প তোমরা অনেক শুনেছ, ভারতীয় Masala সিনেমায় এই archetype এর গল্প অনেক রয়েছে ।


২। দানব বধ


সুপার হিরোদের সিনেমায় একজন দুষ্ট লোক থাকে, সে সমগ্র দুনিয়া জয় করতে চায় । সুপার হিরো মশাই সেই Monster কে মেরে ফেলে অথবা তাড়িয়ে দেন ।


যেকোনো রকমের বাধা পার হওয়ার গল্প হচ্ছে এই শ্রেনির অংশীদার ।


৩। সাত সমুদ্দুর দেখে বাড়ি ফেরা


বাড়ি থেকে বেড়িয়ে পড়ে দুনিয়ার সব জিনিস দেখে, এক গাদা অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করে বাড়ি ফেরা । রবিন্সন ক্রুসো, গেলিভার ট্‌রাভেলস ইদ্যাদি হচ্ছে এই শ্রেনির গল্প ।


৪ । অন্বেষণ


রাজ্যের সব গোয়েন্দা গল্প, হ্যারি পটারের গল্প এগুলো হচ্ছে অন্বেষণ ধর্মী গল্প ।


৫। মিলনাত্মক বা কমেডি


৬। বিয়োগাত্মক বা ট্রাজেডি


৭। পুনর্জন্ম


এই হচ্ছে গল্পের সাতটা প্রাথমিক প্লট । এবার তুমি এই সাতটা প্লট মাথায় রেখে তোমার গল্প লেখার কাজ শুরু করতে পারো ।


গল্পের প্রথমেই গল্পের আবহ তৈরি করবে, অর্থাৎ কোথাকার গল্প, কার গল্প ইত্যাদি কিছু কথা খুব গুছিয়ে লিখবে । অপ্রাসঙ্গিক কথা একেবারেই লেখা যাবেনা । শুধু গল্পের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক সেই সব কথাই লিখবো যেগুলো না লিখলেই নয় ।


গল্পের চরিত্ররা মনে মনে কি ভাবছে সেটা প্রয়োজনমত লিখতে পারো । একে বলে Inner Monologue । আবার এটা করতে গিয়ে চরিত্রদের বোবা করে দেওয়ার প্রয়োজন নেই, প্রয়োজনে গল্পের চরিত্রদের মুক্তভাবে কথা বলতে দাও । মনে রেখো গল্পের চরিত্ররা বইয়ের ভাষায় কথা বলেনা, মুখের ভাষায় কথা বলে, চেষ্টা করবে যাতে তোমার গল্পের চরিত্রেরাও মুখের ভাষায়ই কথা বলে । নাহলে বড় বেশি যান্ত্রিক শোনাবে ।